মেনু নির্বাচন করুন

আতিথেয়তা ও ঐতিহ্যের শহর

ডাউনলোড ব্র্যান্ড বুক

ছবিতে জেলা ব্র্যান্ডিং


বিস্তারিত


রুপকল্প ২০১১ এবং রুপকল্প ২০৪১-এর লক্ষ্য অর্জনের জন্য একটি আর্থিক সম্পদে উন্নত ও নৈতিক বোধে উদ্ভাসিত জাতি গড়তে আমাদের সবোর্চ্চ উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। বিশ্বের সামনে বাংলাদেশকে একটি উন্নত জাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে হলে ডিজিটাল বাংলাদেশ এর স্বপ্ন পূরণে ব্রতী হতে হবে। সবোপরি ২০৩০ সালের মধ্যে টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট অর্জনের জন্য স্থানীয় ও আঞ্চলিকভাবে উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের কোন বিকল্প নেই।

আমাদের এই উপমহাদেশের অন্যান্য অনেক শহরের মত ঢাকারও রয়েছে গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস। ঢাকার পুরনো নিদর্শনগুলো দ্রুত বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে। পুরনো কীর্তিকে হটিয়ে দ্রুত জায়গা করে নিচ্ছে নতুন অট্টালিকা, নতুন ভবন। অথচ পুরনো নিদর্শন হচ্ছে অতীতের স্মৃতি চিহ্ন এবং অতীতকে জানার জন্য সব চেয়ে নির্ভরযোগ্য উপাদান। এগুলো শুধু ইতিহাস পুনর্গঠনে সাহায্যই করে না, বরং এগুলি জনগণের কল্পনার রাজ্যে ইতিহাসকে স্থায়ী করে রাখে আর একটি জাতিকে তার গভীরে প্রোথিত শেকড়ের সন্ধান দেয়। বর্তমান কালকেই ধরা যেতে পারে অতীত এবং অনাগত ভবিষ্যতের এক নির্ভরশীল বিন্দু। ঢাকা শুধু একটি জেলাই নয় এটি এক প্রাচীন রাজধানী যার আছৈ ৪ বার রাজধানী হওয়ার অভিজ্ঞতা। ভৌগোলিক, অর্থনৈতিক, সামাজিক এবং সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে তাই এটিকে বাংলাদেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জেলা বলাই যায়।

আমাদের আছে বেনারসী, আছে পর্যটনের অনন্য সম্ভার। ঐতিহ্য, আধুনিকতা, নকশা এবং সহজলভ্যতার ঢাকাই বেনারসী এক আকর্ষনীয় নাম। ঢাকা জেলার হাজারো পন্যের ভিড়ে বেনারসী তাই এক অন্য প্রত্যয়।

ঢাকা জেলা ব্যান্ডিং একটি সময়োপযোগী পদক্ষেপ। ঢাকা জেলা শুধু ঢাকাবাসীরই নয়। এটি পুরো দেশকেই প্রতিনিধিত্ব করে। ঢাকা জেলা ব্রান্ড বুকের এ প্রকাশনার মাধ্যমে জেলার গৌরবের মাত্রা আরো বেশী ছড়িয়ে পড়বে বিশ্বের দরবারে। ঢাকা তার হৃত গৌরব ফিরে পাবে।

‍‍“ আতিথেয়তা ও ঐতিহ্যের শহর ঢাকা ”-এ স্লোগানকে সামনে রেখে ঢাকা তার জেলা অর্থনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক দিক দিয়ে দক্ষিন এশিয়ার অন্যতম আকর্ষণীয় ও পর্যটন শহর হিসেবে পরিচিতি লাভ করুক।


জেলা ব্র্যান্ডিং এর কর্মপরিকল্পনা


জেলার নাম: ঢাকা

ব্র্যান্ডিংয়ের বিষয়: বেনারসি

কাঙ্খিত ফলাফল

পণ্য (বেনারসি) ব্র্যান্ডিংয়ের ক্ষেত্রে

বিষয়

বর্তমান অবস্থা

কাঙ্খিত লক্ষ্যমাত্রা

পণ্যের উৎপাদন

২০,০০০ টি

৪0% বৃদ্ধি

এ খাতে উদ্যোক্তার সংখ্যা

১,০০০ জন

৬0% বৃদ্ধি

রপ্তানির পরিমান (রপ্তানিযোগ্য হলে)

৫,০০০ টি

৫0%বৃদ্ধি

কর্মসংস্থান

১,০০,০০০ জন

২৫%বৃদ্ধি

স্থানীয় অর্থনীতিতে অবদান

-

৪০%বৃদ্ধি

অবকাঠামোগত উন্নয়ন

-

৮0%বৃদ্ধি

কর্মপরিকল্পনা:

            ঢাকা জেলার একটি অত্যন্ত সম্ভাবনাময় পণ্য হলো বেনারসি। শিল্পগুণে ও ঐতিহ্যে দেশে বিদেশে ইতোমধ্যে সুখ্যাতি অর্জন করেছে এ ঢাকাই পণ্য ‘বেনারসি’। যথাযথ পরিকল্পনা ও অবকাঠামোগত উন্নয়নের মাধ্যমে এই শিল্পটির আশানুরুপ বিকাশ সম্ভব। এ-শিল্পকে যথাযথ বিকাশের মাধ্যমে দেশের আর্থ সামাজিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে সক্ষম হবে।

            এ লক্ষ্যে জেলা ব্র্যান্ডিং বাস্তবায়নের জন্য ০৩ বছর মেয়াদী নিন্মোক্ত কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। উল্লেখযোগ্য পরিকল্পনার মধ্যে রয়েছে-

ক্রম

কার্যক্রম

সময়সীমা

মন্তব্য

নাম, লোগো ও ট্যাগ-লাইন নির্ধারণ

 মে-২০১৭

সম্পন্ন

উদ্দেশ্য ও কাঙ্খিত ফলাফল নির্ধারণ

 মে-২০১৭

চলমান

বেনারসিকে ব্র্যান্ড করার ক্ষেত্রে  SWOT বিশ্লেষণ

 মে-২০১৭

চলমান

উদ্যোক্তা, বাজার, অবকাঠামো ও অন্যান্য বিষয় সম্পর্কে প্রাথমিক তথ্য সংগ্রহ

 মে-২০১৭

চলমান

বেনারসি পণ্যকে বিকশিত করার লক্ষ্য মাসিক সমন্বয় সভায় আলোচনা

চলমান

চলমান

সরকারী ও বেসরকারী অফিস আদালতে বেনারসি পণ্যের প্রচারণা

সেপ্টেম্বর, ২০১৭

চলমান

জেলা ব্র্যান্ডিং কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পাদন ও সমন্বয়ের লক্ষ্যে তত্ত্বাবধায়ক কমিটি গঠন

সেপ্টেম্বর ২০১৭

সম্পন্ন

ঢাকা জেলার বেনারসি শিল্পের উদ্যোক্তাদের তালিকা তৈরি ও হালনাগাদকরণ

অক্টোবর ২০১৭

চলমান

ব্র্যান্ডিং বুক তৈরীকরণ

অক্টোবর-২০১৭

চলমান

১০

বেনারসি বুনন উদ্যোক্তাদের নিয়ে সেমিনার আয়োজন

নভেম্বর ২০১৭

চলমান

১১

বেনারসি উৎপাদকারী উদ্যোক্তাদের সহজ শর্তে ঋণের ব্যবস্থা করা

জানুয়ারী ২০১৮

চলমান

১২

ঢাকায় জেলা-ব্র্যান্ডিং মেলার আয়োজন

ফেব্রুয়ারী ২০১৮

চলমান

     ১৩

বেনারসি বুনন শিল্পীদের জন্য জেলা ও উপজেলায় প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপন

জুলাই ২০১৮

চলমান

ক্রম

কার্যক্রম

সময়সীমা

মন্তব্য

১৪

মহানগরসহ জেলা ও উপজেলাসমূহে বেনারসি প্রদর্শনী ও বিক্রয় কেন্দ্র স্থাপন

জানুয়ারী ২০১৯

চলমান

১৫

বেনারসি বুনন কর্মশালা  ও প্রদর্শনীর আয়োজন

জানুয়ারী- ২০১৮

চলমান

     ১৬

জেলার ইতিহাস, ঐতিহ্য, সংস্কৃতি ও মুল্যবোধকে ব্র্যান্ডিং এর সাথে সম্পৃক্তকরণ

চলমান

চলমান

১৭

জেলা ওয়েব পোর্টাল, টিভি, রেডিও, খবরের কাগজ, স্থানীয় ক্যাবল নেটওয়ার্ক, ইন্টারনেট ও সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচারসহ জেলা প্রশাসকের ফেসবুক পেজের মাধ্যমে প্রচার

চলমান

চলমান

     ১৮

জেলা-ব্র্যান্ডিং সংক্রান্ত ওয়েবপেইজ তৈরি যা, জেলা তথ্য বাতায়নে থাকবে

অক্টোবর ২০১৭

চলমান

     ১৯

বেনারসি পণ্যকে বিকশিত করার লক্ষ্যে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন

মার্চ ২০১৮

চলমান

     ২০

মূল্যায়ন

এপ্রিল ২০১৮

চলমান

জেলার নাম: ঢাকা

    ব্র্যান্ডিংয়ের বিষয়:  পর্যটন শিল্প

কাঙ্খিত ফলাফল

বিষয়

বর্তমান অবস্থা

কাঙ্খিত লক্ষ্যমাত্রা

পর্যটকের সংখ্যা

বছরে ৩,50,000 জন

৩0% বৃদ্ধি

উদ্যোক্তার সংখ্যা

১০00 জন

বছরে ৫০ জন নতুন স্থানীয় উদ্যোক্তা তৈরী

কর্মসংস্থান

৬,000 জন

বছরে ২০০০ জনের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি

পর্যটন শিল্প

সন্তোষজনক

৫0%বৃদ্ধি

অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে গতি সঞ্চার

-

৩0%বৃদ্ধি

স্থানীয় পর্যটনে বার্ষিক প্রবৃদ্ধি

-

৩0%বৃদ্ধি

অবকাঠামোগত উন্নয়ন

-

৮0%বৃদ্ধি

জেলা ব্র্যান্ডিং বাস্তবায়নের জন্য ০৩ (তিন) বছর মেয়াদী নিন্মোক্ত কর্মপরিকল্পনা  

ক্রম

কার্যক্রম

সময়সীমা

  1.  

সংশ্লিষ্ট সকলের অংশগ্রহণে মতবিনিময়  এবং ব্র্যান্ডিং এর বিষয় নির্দিষ্টকরণ

ইতোমধ্যে অনুষ্ঠিত এবং বিষয় নির্ধারিত

  1.  

একজন জেলা ফোকাল পয়েন্ট নির্ধারণ ও বিভিন্ন কমিটি ও উপকমিটি গঠন

 এপ্রিল-২০১৭

  1.  

কাঙ্ক্ষিত ফলাফল নির্ধারণ

এপ্রিল ২০১৭

 

  1.  

ব্র্যান্ডিং লোগো ও ট্যাগলাইন নির্ধারণ

এপ্রিল-২০১৭

  1.  

পর্যটনের বর্তমান অবস্থা বিশ্লেষণ

এপ্রিল-২০১৭

  1.  

পর্যটনকে ব্র্যান্ড করার ক্ষেত্রে  শক্তি, দুর্বলতা, সুযোগ এবং ঝুঁকি চিহ্নিতকরণ

এপ্রিল-২০১৭

  1.  

জেলার ইতিহাস, ঐতিহ্য, সংস্কৃতি ও মুল্যবোধকে  ব্র্যান্ডিং এর সাথে সম্পৃক্তকরণ

চলমান

  1.  

সময়াবদ্ধ  পরিকল্পনা প্রণয়ন

এপ্রিল-২০১৭

  1.  

ব্র্যান্ড বুক প্রণয়ন

জুন, ২০১৭

  1.  

প্রচার

চলমান

  1.  

পরিকল্পনা বাস্তবায়ন

চলমান

  1.  

জেলা ব্র্যান্ডিং মেলা আয়োজন

সেপ্টেম্বর ২০১৭

  1.  

ব্র্যান্ডিং সুভ্যেনির তৈরি

জুলাই ২০১৭

  1.  

জেলা বাতায়নে জেলা-ব্র্যান্ডিং ওয়েবপেইজ তৈরি

মে ২০১৭

  1.  

রাস্তাঘাটের সংস্কার

ডিসেম্বর ২০১৭

ক্রম

কার্যক্রম

সময়সীমা

  1.  

হোটেলের ক্যাটালগ তৈরি ও হালনাগাদ

জুন ২০১৭

  1.  

হোটেলের পরিবেশ উন্নয়ন

আগস্ট ২০১৭

  1.  

পর্যটন স্থানগুলোতে সার্বক্ষণিক নিরাপত্তার ব্যবস্থা গ্রহণ

চলমান

  1.  

স্থানীয় ও জাতীয় পত্রিকায় ব্র্যান্ডিং বিষয়ে লেখা প্রকাশ

জুলাই ২০১৭

  1.  

প্রচার সংক্রান্ত উপকরণ যথা: লিফলেট, বিলবোর্ড তৈরি

জুলাই ২০১৭

  1.  

জেলা-ব্র্যান্ডিং মনোমেন্ট তৈরি

ডিসেম্বর ২০১৭

  1.  

পর্যটন কেন্দ্রে স্বাস্থ্য-সুবিধা নিশ্চিতকরণ

ডিসেম্বর ২০১৭

  1.  

পর্যটন কেন্দ্রে পাবলিক টয়লেট স্থাপন

ডিসেম্বর ২০১৭

  1.  

পর্যটন কেন্দ্রে ওয়াচ টাওয়ার নির্মাণ

ডিসেম্বর ২০১৭

  1.  

জেলা ব্র্যান্ডিংয়ের উদ্দেশ্যে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান/প্রতিযোগিতার আয়োজন

আগস্ট ২০১৭

  1.  

বাস্তবায়ন তদারকি ও পরিবীক্ষণ

চলমান

  1.  

অগ্রগতি মূল্যায়ন ও পরিকল্পনা সংশোধন

প্রতিবছর

ঢাকা জেলার পর্যটনকে দেশে এবং দেশের বাইরে পরিচিত করতে নানাবিধ উপায় অবলম্বন করা হবে প্রচারণার উপায় নিম্নরূপ:

ক্রম

প্রচারের মাধ্যম

সময়সীমা

  1.  

প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মাধ্যম যেমন: রেডিও, টেলিভিশন ও সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপন

চলমান

  1.  

বিভিন্ন দর্শনীয় স্থানে ব্যানার ও বিলবোর্ড  স্থাপন

জুলাই ২০১৭

  1.  

স্থানীয় ক্যাবল নেটওয়ার্কের মাধ্যমে ব্র্যান্ডিংয়ের প্রচার

চলমান

  1.  

সোশ্যাল মিডিয়া-যেমন: ফেসবুক, ইউটিউব, টুইটারে প্রচারণার ব্যবস্থা করা

চলমান

  1.  

জেলা-ব্র্যান্ডিং উৎসব, মেলার আয়োজন করা

জুলাই ২০১৭

  1.  

জেলার বিভিন্ন অনুষ্ঠান জেলা ব্র্যান্ডের আবহে সাজানো

চলমান

  1.  

ব্র্যান্ডিং নিয়ে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও প্রতিযোগিতার আয়োজন

আগস্ট ২০১৭

  1.  

জেলা-ব্র্যান্ডিং সংক্রান্ত ওয়েবপেইজ তৈরি যা, জেলা তথ্য বাতায়নে থাকবে

মে ২০১৭

  1.  

বিভিন্ন লিফলেট ও সুভ্যেনির তৈরি এবং বিতরণ

জুলাই ২০১৭

  1.  

স্থানীয় সকল শ্রেণী-পেশার মানুষের মাধ্যমে প্রচারণা (বিশেষ করে রিক্সা, বাস ও অন্যান্য পরিবহন)

আগস্ট ২০১৭

 

 

ঢাকা জেলা ব্রান্ডিং ভিডিও লিংক ঃ https://youtu.be/YPOHs9EYR4s

 
 


জেলা ব্র্যান্ডিং ভিডিও গ্যালারী



Share with :